ওয়ানডে ক্রিকেটে বাংলাদেশের সর্বোচ্চ রান দক্ষিন আফ্রিকার বিরুদ্ধে ৩৩০/৬

0
23

সাকিব-মুশফিকের হাফ সেঞ্চুরি এবং সৌম্য-রিয়াদ-মোসাদ্দেকের ঝড়ো ব্যাটিংয়ে রেকর্ড গড়ল বাংলাদেশ। বিশ্বকাপে রবিবার বাংলাদেশ নিজেদের প্রথম ম্যাচে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে টস হেরে ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৬ উইকেটে ৩৩০ রান সংগ্রহ করেছে। ওয়ানডে ক্রিকেটে বাংলাদেশের এটি সেরা ইনিংস। এর আগে সর্বোচ্চ স্কোর ছিল ২২৯। ২০১৫ সালে ঢাকায় পাকিস্তানের বিপক্ষে এই রান করেছিল টাইগাররা।
লন্ডনের কেনিংটন ওভালে আজ বাংলাদেশের পক্ষে সর্বোচ্চ ৭৮ রান করেছেন মুশফিকুর রহিম। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৭৫ রান করেছেন সাকিব আল হাসান। ৩০ বলে ৪২ রান করেছেন সৌম্য সরকার। ৩৩ বলে ৪৬ রান করে অপরাজিত থাকেন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। ২০ বলে ২৬ রান করেন মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত। দক্ষিণ আফ্রিকার বোলারদের মধ্যে আন্দিল ফেলুকায়ো ২টি, ক্রিস মরিস ২টি ও ইমরান তাহির ২টি করে উইকেট শিকার করেছেন।
ব্যাটিংয়ে নেমে দুই ওপেনার তামিম ইকবাল ও সৌম্য সরকারের ব্যাটে দারুণ সূচনা করে বাংলাদেশ। কিন্তু তারা দুজন ইনিংসকে বড় করতে পারেননি। দলীয় ৬০ রানে আন্দিল ফেলুকায়োর বলে উইকেটরক্ষকের হাতে ক্যাচ হন তামিম ইকবাল। ২৯ বলে ১৬ রান করেন তিনি।
দলীয় ৭৫ রানে ক্রিস মরিসের বাউন্সার বলটি ঘুরিয়ে মারতে চেয়েছিলেন সৌম্য। কিন্তু তিনি ভালো মতো শটটি খেলতে পারেননি। ব্যাটে বলটি হালকা লেগে উঠে যায়। উইকেটরক্ষক কুইন্টন ডি কক ঝাপ দিয়ে ক্যাচটি নিয়ে নেন। ফেরার আগে ৩০ বলে ৯টি চারের সাহায্যে ৪২ রান করেছেন সৌম্য।
দলীয় ৭৫ রানে সৌম্য সরকার আউট হওয়ার পর সাকিবের সঙ্গে জুটি বাঁধেন মুশফিক। তারা দুজনে ১৪২ রানের জুটি গড়েন। ওয়ানডেতে পঞ্চমবারের মতো শতরানের জুটি গড়েছেন সাকিব ও মুশফিক।
দলের ভিত মজবুত করে দিয়ে সাজঘরে ফিরে যান সাকিব আল হাসান। দলীয় ২১৭ রানে ইমরান তাহিরের বলে বোল্ড হন তিনি। সাকিব সুইপ শট খেলতে চেয়েছিলেন। কিন্তু ব্যাটে-বলে হয়নি। বল গিয়ে আঘাত হানে স্ট্যাম্পে। ৫৪ বলে ব্যক্তিগত অর্ধশত পূরণ করার পর ফেরার আগে তিনি করেন ৭৫ রান। ওয়ানডেতে এটি তার ৪৩তম হাফ সেঞ্চুরি। এবারের বিশ্বকাপে প্রথম ব্যাটসম্যান হিসাবে হাফ সেঞ্চুরি করেছেন সাকিব।
এরপর মোহাম্মদ মিথুন নেমে মেরে খেলছিলন। কিন্তু তিনি বেশিদূর যেতে পারেননি। ২১ বলে ২১ রান করে ফিরে যান তিনি। তাহিরের বলে বোল্ড হন এই ব্যাটসম্যান।
সাকিব আউট হয়ে গেলেও মনে হচ্ছিল মুশফিকুর রহিম ব্যক্তিগত শতরানের গণ্ডি পেরোতে পারবেন। কিন্তু হয়নি। ব্যক্তিগত ৭৮ রানে ফিরে যান মুশফিক। আন্দিল ফেলুকায়োর বলে ডিপ পয়েন্টে ডুসেনের হাতে ক্যাচ হন তিনি। ওয়ানডেতে মুশফিকের এটি ৩৪তম অর্ধশত।
শেষদিকে মোসাদ্দেক ঝড়ো ব্যাট করে দলের রান দ্রুত বাড়িয়ে দিচ্ছিলেন। ৪৯তম ওভারে ক্রিস মরিসের বলে ফেলুকায়োর হাতে ক্যাচ হন তিনি।
বিশ্বকাপে বাংলাদেশ আজ নিজেদের প্রথম ম্যাচ খেলতে নামলেও দক্ষিণ আফ্রিকার এটি দ্বিতীয় ম্যাচ। এর আগে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে টুর্নামেন্টের উদ্বোধনী ম্যাচে ১০৪ রানে হেরেছিল প্রোটিয়ারা।

সংক্ষিপ্ত স্কোর

বাংলাদেশ ইনিংস: ৩৩০/৬ (৫০ ওভার)

(তামিম ইকবাল ১৬, সৌম্য সরকার ৪২, সাকিব আল হাসান ৭৫, মুশফিকুর রহিম ৭৮, মোহাম্মদ মিথুন ২১, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ ৪৬*, মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত ২৬, মেহেদী হাসান মিরাজ ৫*; লুঙ্গি এনগিদি ০/৩৪, কাগিসো রাবাদা ০/৫৭, আন্দিল ফেলুকায়ো ২/৫২, ক্রিস মরিস ২/৭৩, এইডেন মার্করাম ০/৩৮, ইমরান তাহির ২/৫৭, জেপি ডুমিনি ০/১০)।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here