মেয়র হানিফ ফ্লাইওভারে পৃথক মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় ২ জন নিহত-আহত ৩

0
16

রাজধানীর মেয়র হানিফ ফ্লাইওভারে আজ বৃহস্পতিবার বিকালে দুই মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় দুজন নিহত ও তিনজন আহত হয়েছেন।
বিকাল সাড়ে চারটার দিকে যাত্রাবাড়ীর ধলপুরমুখী ঢালে মোটরসাইকেলের নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে পড়ে গিয়ে মারা যান রিয়াজ আহামেদ কাওছার নামের এক শিক্ষার্থী। আহত হয় তার বন্ধু সোহাগ।
অন্য দুর্ঘটনাটি ঘটে বেলা আড়াইটার দিকে রাজধানী সুপার মাকের্টের সামনে ফ্লাইওভারে। সেখানে পেছন থেকে সিএনজি অটোরিকশার ধাক্কায় একটি মোটরসাইকেল থেকে ছিটকে পড়ে মারা যান সিদ্ধেশ্বরী বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের শিক্ষার্থী ইমন। আহত হয় তার দুই বন্ধু।
পুলিশ লাশের ময়নাতদন্তের জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের জরুরি বিভাগের মর্গে পাঠিয়েছে।
ধলপুরের ঘটনা সম্পর্কে নিহতের বন্ধু মারুফ আলম জানান, কাওছার ও সোহাগ নারায়ণগঞ্জের ঝালকুড়ি থেকে দুপুরের দিকে মোটরসাইকেলে করে শনিরআখড়া যান। সেখান থেকে বিকালে কাউছার তার অসুস্থ মামাকে দেখতে মুগদায় যাচ্ছিলেন।
মেয়র হানিফ ফ্লাইওভারের সায়েদাবাদ জনপথ বরাবর দিয়ে ধলপুরগামী ঢাল দিয়ে নামার সময় নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে পড়ে যায় কাউছার ও সোহাগ। গুরুতর আহত অবস্থায় তাদের ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিলে সেখানে বিকাল সোয়া পাঁচটার দিকে চিকিৎসক কাউছারকে মৃত ঘোষণা করেন। আর সোহাগ ওই হাসপাতালের জরুরি বিভাগে চিকিৎসাধীন।
কাউছার ও সোহাগ এবার মাধ্যমিক স্কুল সার্টিফিকেট (এসএসসি) পরীক্ষা দিয়েছে। তাদের বাড়ি নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জের জালকুরি গ্রামে।
ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পুলিশ ফাঁড়ির পরিদর্শক বাচ্চু মিয়া।
রাজধানী সুপারমার্কেটের সামনের দুর্ঘটনায় আহতদের বরাত দিয়ে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের এক জন জানান, আজ বেলা আড়াইটার দিকে ইমন একটি মোটরসাইকেলে করে তার দুই বন্ধুকে নিয়ে শহীদ মিনারে যাচ্ছিলেন। তারা রাজধানী সুপার মার্কেটের সামনে ফ্লাইওভারে পৌঁছালে পেছন থেকে একটি সিএনজিচালিত অটোরিকশা ধাক্কা মারে। এতে তিনজনই মোটরসাইকেল থেকে ছিটকে পড়ে গুরুতর আহত হন।
পরে তাদের তিনজনকে উদ্ধার করে এক পথচারী ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের জরুরি বিভাগে নিয়ে গেলে সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক বেলা সোয়া তিনটার দিকে ইমনকে মৃত ঘোষণা করেন। আহত সোহাগ ও নাসিম হাসপাতালের জরুরি বিভাগে চিকিৎসাধীন।
সিদ্ধেশ্বরী বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের অনার্সের ছাত্র ইমন যাত্রাবাড়ী থানার শনির আখড়া বটতলার জেরিন মিয়ার ছেলে।
ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পুলিশ ফাঁড়ির সহকারী উপপরিদর্শক আবদুল্লাহ খান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here