পাবনার বেড়ায় প্রতিপক্ষের ছুড়িকাঘাতে এক জন খুন

0
358

পাবনা থেকে শামীমা হক: পাবনার বেড়া উপজেলায় হক আলী শেখ (২৮) নামে এক যুবককে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করেছে প্রতিপক্ষের লোকজন।
এ ঘটনায় মঙ্গলবার (১১ জুন) দুপুরে পুলিশ আসলাম (৪৫) নামে একজনকে আটক করেছে।
সকাল সাড়ে ৯টার দিকে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বগুড়া জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মারা যান তিনি।
আসলাম বেড়া পৌর এলাকার শেখপাড়া মহল্লার মৃত মোবারক শেখের ছেলে।
থানা পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, দীর্ঘদিন ধরে বেড়া পৌর এলাকার শেখপাড়া মহল্লার মৃত মোবারক শেখের ছেলে-মেয়ের সঙ্গে প্রতিপক্ষ খালাতো ভাই-বোন মৃত লিয়াকত শেখের ছেলে-মেয়েদের বাড়ির সীমানা নিয়ে বিরোধ চলে আসছিল।
এরই জের ধরে গত সোমবার (১০ জুন) সকালে পৌরসভার আমিন দ্বারা বাড়ির সীমানা নির্ধারণের জন্য বসেন এলাকার প্রধানরা।
এসময় দুই পক্ষের মধ্যে কথা কাটাকাটি শুরু হলে জরিপ বন্ধ করে প্রধানরা দুপুর ১টায় চলে যান। দুপুর ২টার দিকে মৃত লিয়াকত শেখের ছেলে মুন্না (৩০), রাজুসহ (২৬) ১৫ থেকে ২০ জন সঙ্গবদ্ধ হয়ে দেশীয় অস্ত্র ও লাঠিসোটা নিয়ে মোবারকের বাড়িতে অতর্কিত হামলা চালায়। এসময় তারা বাড়িতে থাকা নারীদের বের করে দিয়ে ভাঙচুর ও লুটপাট করে।
এ সংবাদ পেয়ে মোবারকের ছেলে হক আলী, ফরিদ ও তার ছেলে ফয়সাল এসে তাদের বাধা দিলে হামলাকারীরা তাদের ধারালো অস্ত্র দিয়ে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে চলে যায়।
এলাকাবাসী গুরুতর আহত হক আলী (২৮), ফরিদ (৪০) ও ফয়সালকে (২২) উদ্ধার করে বেড়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন। পরে হক আলী (২৮) ও ফরিদের (৪০) অবস্থার অবনতি হলে তাদের বগুড়া জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে হক আলী মারা যান।
বেড়া মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাহিদ মাহমুদ খান জানান, দুইপক্ষের মধ্যে বাড়ির সীমানার বিরোধ নিয়ে এ ঘটনা ঘটেছে। এ ব্যাপারে থানায় একটি মামলা হয়েছে। পুলিশ আসলাম (৪৫) নামে একজনকে আটক করেছে। অন্যান্যদের গ্রেফতারে অভিযান চালানো হচ্ছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here